কবির উপলব্ধি  //   রনেশ রায় // প্রথম ভাগ – ১

455

বাংলা সাহিত্যের প্রবাদ পুরুষ কবি মধুসূদন দত্ত ইংরেজী ভাষার প্রতি মোহগ্রস্ত হয়ে বিদেশি ভাষায় লিখে কবি হিসেবে বিশ্বজোড়া খ্যাতি অর্জনের লোভে পাড়ি দেন পশ্চিমে। অল্পদিনের মধ্যে উপলব্ধি করেন মাতৃভাষায় সাহিত্যচর্চাই  কারও সৃজনশীলতার বিকাশ ঘটাতে পারে। বিদেশী ভাষা এর উপযুক্ত ক্ষেত্র হতে পারে না। তিনি মাতৃভাষায় সাহিত্যচর্চা কখন-ও ছাড়েন নি। তাঁর উপলব্ধি তাঁকে ফিরিয়ে আনে দেশে।

.

মাতৃভাষায় কাব্যচর্চা তাঁর প্রতিভার স্ফুরণ ঘটায়। তাঁর অমিতাক্ষর ছন্দ, বাংলায় লেখা মহাকাব্য, সনেট বাংলা সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করেছে, অলংকৃত করেছে, বিশ্ব সাহিত্যের দরবারে তাকে মহিমান্বিত করেছে। আজ ইংরেজিতে মোহগ্রস্ত বাঙ্গালী সমাজের কাছে এই সত্যটা আবার নতুন করে তুলে ধরা দরকার। আমাদের  কাছে কবির উপলব্ধির বিষয়টা বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এটা যে শুধু সাহিত্য চর্চার জগতে একটা ভাষাকে টিকিয়ে রাখার প্রশ্ন তা নয়, নিজেদের সত্তা বাঁচিয়ে রাখা একই সঙ্গে দেশের স্বার্বভৌমত্ব রক্ষা করার প্রশ্নের সঙ্গে যুক্ত। নিজেদের স্বাধীন শক্তপোক্ত অর্থনীতি গড়ে তোলার স্বার্থেও এটা দরকার।

     .   

বলে রাখা দরকার যে বিদেশি সাহিত্য চর্চায় আমাদের আপত্তি নেই। বরং আমরা দেখি যে মধুসূদনের বিদেশি সাহিত্য চর্চা বাংলা সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করেছে। কবিতার জগতে ছন্দ ও লয়ে বিশেষ মাত্রা যোগ করেছে। কিন্তু মাতৃ ভাষার ওপর দখল রেখেই সেটা করা সম্ভব। মাতৃ ভাষার ওপরে দখল রাখতে পারলেই সাহিত্য চর্চায় বিদেশী ভাষার ওপর দখল  আসে। আজ আমাদের ভাষার জগতে দখলদারদের প্রতিযোগিতা আগ্রাসী ব্যবসার স্বার্থে, সাহিত্য চর্চার জন্য নয়। দৃষ্টিভঙ্গি হ`ল ভাষাকে ব্যবসা জগতের দাস হিসেবে ব্যবহার করা। এখানেই আমাদের আপত্তি। এতে পেটের খোরাক জুটতে পারে কিন্তু মনের খোরাক নয়।

.

আরও বলে রাখা দরকার যে বিষয়টা নেহাৎ বাংলা ভাষা নয়, বাঙ্গালিয়ানা চাষের বিষয় নয়। মানুষের জীবনে মাতৃভাষার অপরিসীম গুরুত্বের বিষয় তা যে  ভাষা-ভাষীর মানুষই হোক না কেন। তার সৃজনশীলতার পথ খুলে রাখার বিষয়। কবি মধুসূদনের উপলব্ধিটা যে কত গভীরে তা বোঝা যায় মৃত্যুকালে তিনি যে সমাধিলিপি তাঁর মাতৃ ভাষায় লিখে লিপিবদ্ধ করে যান তাতে। সেখানে তিনি তার পূর্বপুরুষকে স্মরণ করেন। জন্মভূমিকে মাতৃসম জ্ঞান করে লিখে যান। এখানে যেন তিনি প্রতিটি বঙ্গবাসীকে বলেন তার পরিচয় তিনি বাঙালি ………

………….. চলবে 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: