তৃতীয় কোজাগরী

শম্পা বিশ্বাস

সেবার প্রথম কোজগরী ছিল না ঠিকই

কিন্তু

জীবনের ভগ্নাংশের প্রথম অধ্যায়টা

বােধহয় সেবারই

ছাপা হয়েছিল খবরের কাগজে।

 

পূর্ণিমার একলা ছাদে

আমার বিরহ, বেদনা, জ্বালা,

যন্ত্রণা, রােগ, ব্যাধি

আশ্বিনের কুয়াশাভেজা সন্ধ্যা ও আমার

অগাধ বিশ্বাসের ফাটল

এরা সবাই মিলে আমার সামনে

আমারই পরাজয় সেলিব্রেট করছিল।

 

সে পাট

সেবারের মতাে চুকিয়ে দিয়ে ডাকলাম

আর একবার কোজাগরীকে।

তখনও সে কোজাগরী

বেশ জামদানি অভিনয়ের আয়ােজন করল

রাগে-ক্ষোভে চণ্ডালিকা হলাম আমি

 

পুবদিকের বারান্দা পূর্ণিমার আলােয়

নিজেকে রাঙানাের স্বপ্ন দেখছিল,

কিন্তু বেইমান কোজাগরী তাকে দিল

অন্ধকারের হাত ধরে

একাকীত্বের সেলিব্রেশন

 

এবারের কোজাগরী এনেছে

দারুচিনি বাস্তবে এলাচ অনুভূতি।

 

———–…………..—————–

( কবিতাটি বাক্প্রতিমা  সাহিত্য পত্রিকা থেকে সংগৃহীত )

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: