বইগুলো নিজেই নিজেকে পড়ছে

পরিবর্তন  //  সুদীপ ঘোষাল

বইগুলো নিজেই নিজেকে পড়ছে
ছেলের হাতে মোবাইল
ও আর বই পড়তে চায় না
ই বুক আর পি ডি এফে ব্যস্ত মগজ

সিমেন্টের বস্তার উপর একটা বই
এদিক ওদিক তাকিয়ে তুলে নিলাম হাতে
বস্তার মালিক এসে নিয়ে গেলো সিমেন্ট

বইটা কার? আমরা তো এত দামী বই পড়ার সুযোগ পাই না
সোনালী চাঁদের ম্লান হাসি এনে ছেলেটি বললো
বইটা নিতে পারেন
আমি পি ডি এফ পেয়ে গেছি

আমার চিন্তার সুতো ছিঁড়ে
সহজ পাঠের ছবি ভাসে
“ছোটো খোকা বলে অ আ”…

.

শেকল  //  সুদীপ ঘোষাল

আশা রাবারের মত বড় হতে হতে কোথায় থামে
এই যে বাড়ি থেকে পা ফেললে বন্ধু শিশির

সন্ন্যাসীর পা ধোয়ানোর আদর ছড়ায় হৃদয়ে
পায়ে পায়ে মাটির পরশ,ভাঁটফুল, ঢোল কলমি ছুঁয়ে
ধুলোর রাস্তা ধরে সিদ্ধিলাভ, আশা আরও দীর্ঘ পথ জুড়ে
সময় জাদু জড়িয়ে রাখে অপেক্ষার উপহার
জীবন এগোতে থাকে অন্ধকার মেখে

আশা জড়িয়ে রাখে লোভের শেকল…

.

জলজ  //  সুদীপ ঘোষাল

পানসি  নৌকায় স্বপ্ন দেখেছি
মূহুর্মূহু জলজ হয়েছি
দাঁড় টেনেছি উল্লাসে

আজ পাল তোলা নৌকা যান্ত্রিক

জল বেয়ে যায় রোবোট  জীবন

কালের গতিতে স্বচ্ছল হাওয়া
জীবন ঠেলে ঠেলে বায়

বর্তমান  জলজ হতে ভুলে যায়…

.

বিহু  //  সুদীপ ঘোষাল

কপালে ঠাম্মার চুমুর মত নরম কবি

প্রকৃতির ভাষা পড়লেন

তারপর বিহু কলমের মকসো  …

মৌন পাহাড়  ঝর্ণার ব্যস্ততায়
দুঃখ সুখে চাঁদের হাসি

অরণ্যের নির্জন গভীরতা

সবুজের দয়াময় রূপ নীল সমুদ্র

আকাশের বিশাল উদার বক্ষ

প্রকৃতির ভাষা আর বিহুর ছন্দ
খোঁজ দিলো নবসভ্যতার সাঁকো …

.

তোমার কবিতা   //  মাধব মন্ডল

.
দু’বেলা অন্ধকার খাই
দু’বেলা আলো
তোর গরম শরীর নষ্ট করেছি
বুঝি কষ্ট তোর।
আড়ে আর বহরে বেড়েছি
নিজেকে সাজিয়েছি বাঘ
আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়েছি তোকে
মন পুড়েছে তোর।
শুরুর সময় কবিতা ছিলি
আজও আছিস তাই
পোড়া মনে হি হি হাসি আজও
হাসি নেই তোর।
আজ তোর কবিতা লিখলে
ভয়ঙ্কর বেজার হোস
স্পষ্ট করে বলে দিস
কবিতা কি হাতি দিল তোর।?
শাঁখা ও সিঁদুর নিয়ে
আমার আগে টিকিট চাস
বলিস সাত পাক কেটে যাবে
এটাই শেষ পাক তোর!।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: