বর্তমান  – শুভপরিণয়

                     তন্ময় সিংহ রায়      

বর্তমানে শুভ পরিণয় সুসম্পন্ন হয় হিসেব নিকেশ পাকা করে। ছেলে যদি সরকারি চাকুরীজীবী /প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী হয়, হরেক রকম গোত্রের সুন্দরি মেয়ে অথবা মেয়ের বাবাদের দামি বেনারসি ও নিরাপত্তার স্বপ্ন জড়ানো দুচোখের পাতা, রাতারাতি বিনয়ী বদনে আধার কার্ড হাতে লাইনে দাঁড়াতে পূর্ণ সাহায্য করে লিঙ্ক করাবার বাসনায়।

ছেলে যদি মোদো-মাতাল, অসুন্দর, চরিত্রহীন, বুড়ো বা অশিক্ষিতও হয়…. কুছ পরোয়া নেহি…..বিষয়টা হলো ‘দামি বেনারসি ও নিরাপত্তা।’…. ‘নিরাপত্তাহীনতায় কে ভুগিতে চায় হে কে ভুগিতে চায়।’ অপরদিকে বেশি পয়সায় সুন্দর প্রোডাক্ট প্রাপ্তিতে ছেলেটিও মনে মনে বকবক খুশি!

প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কেনাবেচার এই ঢেউ দুকূল ছাপিয়ে  প্লাবিত করছে বর্তমান সমাজকে। ‘বিশ্বাস’ শব্দটা বর্তমান সমাজে কালির কলম। ভদ্র-নম্র বা শিক্ষিত ও মনুষ্যত্ববান পরে আগে পয়সাওয়ালা হওয়াটা অতি আবশ্যক।

প্রশ্ন হল… বিবেক, মনুষ্যত্ব বিক্রি করে কি আর দামি বেনারসি ও নিরাপত্তা পাওয়া যায়, না পাওয়া যায় দামি দামি প্রসাধনী ?? বিবেক-মনুষ্যত্ববান, সৎ গরিব স্বামির গর্বিত স্ত্রী হতে আজ আর কেউই চায়না, চায় পয়সাওয়ালা মেশিন অর্থাৎ সম্পূর্ণ জীবনের নিতান্তই ব্যক্তিগত একটা এ.টি.এম।

এ হেন সামাজিক চিত্রে….. ঘরে ঘরে বিবাহবিচ্ছেদের কোলাহলে পুলিশ স্টেশন ও কোর্ট লাভ করেছে  পরিপূর্ণতা। আত্মহত্যা ও খুন লঙ্ঘন করেছে তাদের সীমা কারণ মনের বোঝাপড়া পরে আগে এ.টি.এম। তবুও নির্দ্বিধায় ও খুব স্বাভাবিকভাবেই বর্তমানে চলছে এই সিস্টেমের চাকা।  ( ব্যতিক্রম স্বীকার্য । ) 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *