বিষয়:ফিরে এসো,ফেব্রুয়ারী মাস // রাজা বাগচী

প্রিয় সাথী বুধ সকালে,

 

ফিরে এসো ডাক শোনালেই যে আমরা ফিরে আসবো এই রকম ভাবার কোনো কারণ নেই গো বন্ধু!আমরা যে নব্য প্রযুক্তির সওয়ার,পিছন ফিরে তাকাবার সময় কোথায় গো আমাদের?মুক্ত বিহঙ্গের মতো চাওয়া পাওয়ার ঝুলিটাকে পূর্ণ না করা পর্যন্ত থামবোই না।

চিরায়ত বাঙালি সংস্কৃতি, চিন্তা,চেতনা,মনন ইত্যাদি অনুকরণ প্রিয়তা আর আধুনিকতার স্পর্শে উদ্বায়ী কর্পূর।ড্যাডি,মাম্মি ডাক স্ট্যাটাস সিম্বল।পার্টি,ডিক্সো থেক,নাইট ক্লাব,ডান্স বার,হুক্কাবার,মিশে যাচ্ছে মজ্জায় মজ্জায়।বিজয়ার প্রীতি শুভেচ্ছা বিনিময় অন্তর্হিত।চন্ডীমন্ডপ,চিলেকোঠা, খিড়কি,তুলসীমঞ্চ,ভাঁড়ার ঘর,শব্দ গুলো অবলুপ্ত।রান্নাঘর হয়েছে কিচেন,আরাম কেদারা এখন রকিং চেয়ার —আর তুমি ফিরে আসতে বলছ অত্যাধুনিক এই বিলাস বহুল পরিবেশ ছেড়ে?

আমরা তো বাহ্যিক আধুনিকতার পূজারী গো।প্রত্যেকেই প্রত্যেকের নজরবন্দী,অথচ পগ্রেসিভনেসের দাবীদার।সাম্প্রতিক অতীতে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,রেষ্টুরেন্ট বা শপিংমলে সিসি টিভির নজরবন্দী থেকেছি কি আমরা?কিন্তু এখন তোমাকে থাকতে হবেই,সে তুমি যে মহাপুরুষই হও না কেন!তুমি বলবে সিসি টিভি নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করে,বেশ মানলাম।তবে এটাও তো মানতে হয় যে,সন্দেহের তীক্ষ্ণ চোখ সাধু অসাধু সকলের ওপরেই নজর রাখছে বা ব্যাপকার্থে অসাধু নির্ণয় করার আগে পর্যন্ত আমরা সবাই অসাধু।এটাতো পারস্পরিক বিশ্বাসযোগ্যতার ভিত টাকেই টলিয়ে দিয়েছে।আমরা জ্ঞাতসারেই মেনে নিয়েছি এই সিষ্টেম।

এখান থেকে ফেরবার পথ যে একেবারেই রুদ্ধ হয়ে গেছে গো!তবুও আমরা কতিপয় বাঙালি মানুষ আজও স্বপ্ন দেখি ফিরে আসবে আমাদের সেই অতীত ঐতিহ্য।নিজেদের আন্তরিক বোঝাপড়া আবার সংহতি স্থাপন করতে পারবে।একদিন হয়তো আসবে যেদিন আত্মার সম্পর্কই আত্মীয় বলে বিবেচিত হবে আবার।ফিরতে যে হবেই আমাদের।তাই সমস্ত হিংসা,দ্বেষ,বৈরিতা ভুলে কবি কাজী নজরুল ইসলামকে ধার করে বলি —“মুসাফির মোছ রে আঁখিজল,ফিরে চল আপনারে নিয়া”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: