ঠোঁটে রঙের আলপনা

1241

বিন্যাস  //  তন্মনা চ্যাটার্জী

একটা চিরকুট 

এলোমেলো সোহাগের সুতোয় বাঁধা

তুমুল আবেগের ঘর 

বোঝে না আইনকানুন রীতি,

চৌকাঠ পেরোতে গিয়ে 

হঠাৎ থমকে দাঁড়ায় কিছু নির্বাক অঙ্গীকার।

সময়ের সুর ~

নিবিড় থেকে নিবিরতম হওয়ার 

স্পর্শকাতর অভ্যাসের সূচনায়, 

নিভৃতে বিছিয়ে দিয়ে যায় জলছবির আঁকিবুঁকি।

দিনান্তে কঠোর হওয়ার ইঙ্গিতেও 

সুস্পষ্ট থাকে বিশ্বাসের অস্তিত্ব 

আর বোধনের অপেক্ষারা !!

.

.

.

বৈশাখী ঝড়  // সত্যেন্দ্রনাথ পাইন

ফুটন্ত বুক, মাথায় উড়ন্ত একঝাঁক এলোচুল

দু’টো ভ্রূর মাঝখানে ছোট্ট একটা কুমকুম টিপ

রাতের আকাশে ক্ষুদ্রতম নক্ষত্রের মতো

কানে আধুনিক দু’থাকের ঝুমকো

ঠোঁটে রঙের আলপনা

পরণে ঘণ বেগুনী রঙের সালোয়ার

বুকেতে যার সাদা নকশা যেন প্রেমের সম্ভোগ-হরিণী

আমাকে টানে

নিজের বুকের খাঁজ থেকে বাঁচতে

মোক্ষম সুযোগ খুঁজে খুঁজে ক্লান্ত

মনে হয় জলন্ত বৈশাখের এক অসামান্য

ঘূর্ণিঝড়– শরীরটাকে চেটে চেটে খেতে চায়

আমি কী করব বুঝতে পারি না ‌।

মনে হয় তোমার জন্য অপেক্ষারত 

কোনো দালালকে

অকাতরে আমার তুচ্ছ জীবনটা দান করি

তোমার কথার মাধুরীতে ভুলিয়ে দিতে একবার

একবার, অন্তত  সুযোগ দাও  ।

.

.

.

শান্তির বাসা  //মিজানুর রহমান মিজান

যত আছে প্রেম পিপাসা
চাওয়া পেতে ভালবাসা
মরণ কালে দিও সঠিক দিশা।।
আসবার কালে আসলাম ভবে
ওয়াদা করলাম নাম জপব সবে
ভঙ্গ হল সর্বাগ্রে রুপ খোয়াবে
পথহারা পথিক হলাম বেদিশা।।
রং ঢঙে জীবন সাঙ্গ
ভাবি নিয়ে পোড়া অঙ্গ
পাইতে তোমার একমাত্র সঙ্গ
না রাখিলে নিরুপায় জলে ভাসা।।
দিবানিশি এক ভাবনা
তোমার প্রেমিক প্রেম দেওয়ানা
অতুলনীয় গুণের সীমানা
দয়ার ভান্ডার রহম ভরসা।।
নি:সঙ্গ বাসরে বেদনার ঢল
দু’নয়নে বহে অশান্তির জল
খুলে দাও রহম ভান্ডার নিভাতে অনল
মন্দ ভাগের ইতি টেনে পাইতে শান্তির বাসা।।

.
.
.

বিশ্ব করবো জয়   //    প্রবীর রায়

আমরা তরুণ স্বপ্ন মোদের 
বিশ্ব করবো জয় 
অন্ধকার সব দুর করে 
বিশ্ব করবো আলোকময়।
ছুটবো মোরা মহাশূন্যে 
গ্রহ থেকে গ্রহান্তরে
সাত সমুদ্র পাড়ি দিয়ে
যাবো মোরা তেপান্তরে।
জয় করবো পাহাড়চূড়া
মুসা-মুহিতের মতো
পিছু হবোনা কোন কাজে
আসুক বাঁধা যতশত।
সন্ত্রাস-দূর্নীতির বিরুদ্ধে 
চলবে মোদের সংগ্রাম 
অন্যায়-অবিচার রুখবো
এই করেছি পন।
অসামাজিক কার্যকলাপ 
করবো মোরা প্রতিরোধ 
সকল মানুষের মনে 
জাগিয়ে তুলবো শুভবোধ।

.

.

,

আমার বসন্ত   //    কিশলয়  মিত্র 

আমার হৃদয়ে তোমার অগুন্তি অপেক্ষা

যদিও বসন্ত এসে গেছে,

হয়তো এভাবেই প্রতিক্ষার দিন গুনে শেষ হবে- 

আমার, আরও শত বসন্ত।

তবুও জানি ,তুমি আসবে না ফিরে

হয়তো আসা একেবারেই সম্ভব নয় বলেই।

তবুও তো বসন্ত ফুল ফুটিয়ে…….

প্রেমিক হৃদয়টা কোকিলের মতো কাঁদে।

বাতাসে-বাতাসে সুরের তান লাগে।

মননে হলি-র রং লাগে।

আমার বসন্ত কাটে কেবলই–

ফাঁটা বাঁঁশির বেসুর তালে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *